ডাক্তার দেখিয়ে পাবনা থেকে ফেরার পথে লাশ হলেন ৫ জন

নিউজ ডেস্ক: ডাক্তার দেখিয়ে পাবনা থেকে ফেরার পথে লাশ হলেন ৫ জন দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি। নিতদের মধ্যে দু’জন প্রতিবন্ধী ছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

নিহত পাঁচ জনের মধ্যে দু’জনের নাম-পরিচয় জানা গেছে। এরা হলেন- দুর্ঘটনাকবলিত অ্যাম্বুলেন্সটির চালক মফিজ উদ্দিন (৫৫) ও নড়াইলের লোহাগাড়া উপজেলার লক্ষীপাশা এলাকার টিপু (৪০)।

মঙ্গলবার (০৩ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বিত্তিপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে অ্যাম্বুলেন্স চালকসহ পাঁচ যাত্রী নিহত হন।

কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহমান বলেন, নড়াইলের লক্ষীপাশা এলাকা থেকে ডাক্তার দেখানো জন্য ইফাত নামে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে কয়েকজন পাবনা মানসিক হাসপাতালে গিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। ফেরার পথে বিত্তিপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী অ্যাম্বুলেন্সটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই অ্যাম্বুলেন্স চালকসহ পাঁচ যাত্রী নিহত হন। এ ঘটনায় গুরুত্বর আহতাবস্থায় আরও একজন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ জানান, স্থানীয়দের দেওয়া খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। সংঘর্ষে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট ওয়াহিদ বাংলানিউজকে জানান, কুষ্টিয়া-ঝিনাদহ সড়কে দুর্ঘটনায় ঘটার ফলে যান চলাচল বন্ধ যায়। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় এক ঘণ্টার মধ্যে দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি সরিয়ে দেওয়ার পর সড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। নিহতদের মরদেহ কুষ্টিয়া হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে। তবে ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করা হলেও চালক ও তার সহকারী (হেলপার) পলাতক রয়েছেন।

শেয়ার করুন :