নিউমার্কেটে সংঘর্ষের ঘটনায় ৩০ শিক্ষার্থী আহত

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ৩০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। বিষয়টি ইত্তেফাককে নিশ্চিত করেছেন ঢাকা কলেজ শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ড. মো. আব্দুল কুদ্দুস সিকদার।

তিনি জানান, সোমবার (১৮ এপ্রিল) মধ্যরাত থেকে এই পর্যন্ত সংঘর্ষের ঘটনায় ঢাকা কলেজের অন্তত ৩০ এর অধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

গতরাতের ঘটনার পর মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) সকাল থেকে নিউমার্কেট এলাকা অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। এতে নিউমার্কেটের সকল দোকানপাট বন্ধের সঙ্গে সড়কের উভয় পাশে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীরা আবারো সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

উত্তপ্ত নিউমার্কেট এলাকা, ফের সংঘর্ষউত্তপ্ত নিউমার্কেট এলাকা, ফের সংঘর্ষ
সোমবার (১৮ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। উত্তেজনা চলে ভোর পর্যন্ত। এ ঘটনার জের ধরে নিউমার্কেট খুলতে না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এদিকে ঢাকা কলেজের আজ মঙ্গলবারের সব ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে কলেজের সব শিক্ষককে সকাল ১০টায় ক্যাম্পাসে উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এ অনুরোধ জানিয়েছেন।

এর আগে সংঘর্ষের শুরুর দিকে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা শুরু করে। এ সময় উভয় পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা ব্যর্থ হলে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার শেল ছোড়ে পুলিশ। এক পর্যায়ে সংঘর্ষ থামলেও নিউমার্কেট এলাকাজুড়ে রাতভর উত্তেজনা বিরাজ করে।

পুলিশের ধাওয়ায় ছত্রভঙ্গ হয়ে যাওয়ার পর রাত আড়াইটার দিকে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা আবারও ঐক্যবদ্ধ হয়ে ক্যাম্পাস থেকে বেরিয়ে আসেন। এ সময় তারা পুলিশের মুখোমুখি অবস্থান করে বিভিন্ন স্লোগান দিতে শুরু করেন। শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটে তাদের অনেকেই আহত হয়েছেন।

নীলক্ষেত এলাকায় যান চলাচল বন্ধনীলক্ষেত এলাকায় যান চলাচল বন্ধ
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকা কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, পুলিশ আমাদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে। এতে মোশারফ হোসেন বুলেটবিদ্ধ হন। অন্যদিকে পুলিশের ছোঁড়া টিয়ার শেল রজবের বুকে লাগে।

আহতদের মধ্যে মোশাররফের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে আইসিইউতে নিতে বলেছে চিকিৎসক— বলেন ওই শিক্ষার্থী।

ডিএমপির নিউমার্কেট জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (এসি) শরীফ মুহাম্মদ ফারুকুজ্জামান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে পুলিশ।

শেয়ার করুন :