লালবাগ থেকে তরুণীকে তুলে নিয়ে চারদিন আটকে রেখে ‘ধর্ষণের’ ঘটনায় আটক ১

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : রাজধানীর লালবাগ এলাকা থেকে এক তরুণীকে তুলে নিয়ে চারদিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত যুবককে আটক করেছে র‍্যাব। র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন সংবাদ সম্মেলন করে এর আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। 

বৃহস্পতিবার ১৭ ফেব্রুয়ারি কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, অভিযুক্ত যুবকের নাম মো. মনির হোসেন শুভ (২২)। এই ঘটনায় আল আমিন নামের আরেক যুবক সহযোগী হিসেবে ছিল। তবে সে পলাতক রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘রাজধানীর লালবাগ এলাকায় এক তরুণীকে তুলে নিয়ে চারদিন আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। চারদিন আটকে রেখে ধর্ষণ শেষে বুধবার সন্ধ্যায় শাহবাগ এলাকায় ফেলে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী তরুণী। ধর্ষণের শিকার তরুণী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।’

প্রকাশিত বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘গত ১২ ফেব্রুয়ারি সকালে লালবাগ কেল্লা মোড়ে শুভ ও আল আমিন তার মুখে রুমাল চেপে রিকশায় তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তরুণীকে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে চারদিন আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে ১৬ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে অসুস্থ অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যায়। একজন পথচারী উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন তাকে।’

আটক শুভ র‍্যাবকে জানিয়েছে, শুভ বর্তমানে একটি কলেজ থেকে বিবিএ করছেন। তরুণীটি এক মাস আগে লালবাগ এলাকায় তার এক বন্ধুর মাধ্যমে পরিচয় হয়। এরপর তারা ৫ থেকে ৭ বার দেখা করেছে। তবে তুলে নিয়ে আটকে রাখার বিষয়ে জানতে চাইলে শুভ র‌্যাবকে কোনো তথ্য দেয়নি বলে জানান খন্দকার আল মঈন। 

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘নির্যাতিত তরুণী বর্তমানে  ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন, তাই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হয়নি। ঘটনার বিষয়ে পরবর্তীতে তদন্ত কর্মকর্তা বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদে জানাবেন। এ বিষয়ে মামলার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

শেয়ার করুন :