“ছাত্র ফোরাম” (ঐক্যবদ্ধ ছাত্র সমাজ) এর ৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : ছাত্র ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শিক্ষাঙ্গনে সকল মতের সহবস্থান নিশ্চিত করে ছাত্র সমাজের গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা এবং দেশে কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় ছাত্র সমাজের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনায় ২ পর্বের সভায় ছাত্র ফোরাম এর আহবায়ক সানজিদ রহমান শুভ এর সভাপতিত্বে গণফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সভার প্রথম পর্বে কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমিটির বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় “ঐক্যবদ্ধ ছাত্র সমাজ” এর নাম পরিবর্তন করে “ছাত্র ফোরাম” নামকরণ করার প্রস্তাব উত্থাপন করা হয় এবং সভায় উপস্থিত সকলের সম্মতিক্রমে সে প্রস্তাব গৃহীত হয়।

৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবর থেকে ছাত্র ফোরাম নামে কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সভার ২য় পর্বে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতির বক্তব্যে সানজিদ রহমান শুভ বলেন- এদেশের ছাত্র রাজনীতিকে সরকার সুকৌশলে ধ্বংস করেছে। ছাত্র নেতাদেরকে রাজনৈতিক শিশু শ্রমিক হিসেবে ব্যবহার করছে এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে দলীয় দাস বানিয়ে ফেলছে। ছাত্র ফোরামকে সু-সংগঠিত করে রাজপথে সকল অন্যায়-অনিয়মের জবাব দেওয়া হবে।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন- এমন এক দুর্বিষহ পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে আমরা দিন অতিবাহিত করছি যখন দেশে এক দুঃশাসন জনজীবনের সকল সহ্য সীমা অতিক্রম করেছে। কর্তৃত্ববাদী সরকার জনগণের ভোটাধিকার হরণের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে জনবান্ধব সকল কর্ম ভুলে গিয়ে জনগণের উপর অসহনীয় চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছে। পরিকল্পিতভাবে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে কারন এটাই একটা জাতির অন্যায় প্রতিরোধের সবচেয়ে শক্তির জায়গা এবং বলিষ্ঠ কন্ঠ। সহ অবস্থান কি সেটা আজ ছাত্র সমাজকে জোর করে ভুলিয়ে রাখতে চায় শাসকগোষ্ঠীর ছাত্র সংগঠন নামধারী সন্ত্রাসীরা এবং শিক্ষাঙ্গনের দলকানা প্রশাসন। যা জাতির জন্য লজ্জা লজ্জা লজ্জা। স্বাধীনতার পর এরকম ভয়াবহ দুঃশাসন এর আগে কখনো দেখিনি। তাই সকল অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে তরুণ ছাত্র সমাজকে এগিয়ে এসে নেতৃত্ব দিতে হবে যেভাবে আপনাদের পূর্বপুরুষরা অতীতে জাতির ক্রান্তিলগ্নে ৫২, ৬২, ৬৬, ৬৯এর গণঅভ্যুত্থান, ৭১এর মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ৯০এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে দেশ ও জাতীকে সঠিক পথের দিশা দেখিয়েছিল।

আরও বক্তব্য রাখেন গণফোরাম সভাপতি পরিষদ সদস্য এডভোকেট ফজলুল হক সরকার, আতাউর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, ঐক্যবদ্ধ ছাত্র সমাজের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, ছাত্র ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রিয়াদ হোসেন, আনোয়ার ইব্রাহীম, নাসির হোসেন, সৈয়দ সামিউল ইসলাম, আহমদ আরিফ, দেলোয়ার হোসেন মিথুন প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম সাংগঠনিক সম্পাদক(ঢাকা বিভাগ) মোঃ রওশন ইয়াজদানী, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কামাল উদ্দিন সুমন, যুব গণফোরাম সদস্য তানভির আহমেদ, ছাত্র ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল হৃদয়, সাজ্জাদুর রহমান শাওন, নাঈমুল ইসলাম, ফাতিমা-তুজ জোহরা, রাকিব হোসেন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সভা সঞ্চালনা করেন ছাত্র ফোরাম সদস্য সচিব ইসমাইল সম্রাট।

শেয়ার করুন :