বাণিজ্য মেলা চলবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নতুন বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার। এতে সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় ও রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি জনসমাবেশ না করার কথা বলা হয়েছে। তবে এর মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাণিজ্য মেলা চলবে বলে জানিয়েছে মেলা কর্তৃপক্ষ।

গতকাল শুক্রবার বাণিজ্য মেলার পরিচালক ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) সচিব ইফতেখার আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘মেলা বন্ধের বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এখনো নতুন নির্দেশনা আসেনি। তবে আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে তদারকি আরও বাড়িয়েছি। এ জন্য গতকাল থেকে মেলা প্রাঙ্গণে ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করছেন। মাস্ক না পরা ও স্বাস্থ্যবিধি ভাঙায় গতকাল ১১ জনকে জরিমানা করা হয়েছে। আজও একজনকে জরিমানা করা হয়েছে। এ ছাড়া অনেককে সতর্ক করা হয়েছে।’

সরকার ঘোষিত ১১ দফা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই মেলার কার্যক্রম চলছে বলে জানান মেলার পরিচালক। একই সঙ্গে ক্রেতা-দর্শনার্থীদেরও সচেতন থাকার পরামর্শ দেন তিনি।

পূর্বাচলের নতুন ঠিকানায় বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী প্রদর্শন কেন্দ্রে (বিবিসিএফইসি) অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবারের বাণিজ্য মেলা। মেলায় দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মোট ২৩টি প্যাভিলিয়ন, ২৭টি মিনি প্যাভিলিয়ন, ১৬২টি স্টল ও ১৫টি খাবারের দোকান রয়েছে।

শুরুর দিকে ক্রেতা দর্শনার্থীর সংখ্যা একদম কম থাকলেও গত এক সপ্তাহে মেলায় দর্শনার্থী অনেকটাই বেড়েছিল। এখন অমিক্রনের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ক্রেতার উপস্থিতি আবারও কমে যেতে পারে বলে আশঙ্কা মেলায় স্টল দেওয়া ব্যবসায়ীদের।
সরকারের বিধিনিষেধে আরও বলা হয়েছে, ধর্মীয়, রাজনৈতিক ও সামাজিক অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি সমাগম করা যাবে না। যারা আসবে তাদের অবশ্যই টিকার সনদ ও পাশাপাশি করোনা পরীক্ষায় আক্রান্ত নয়, এমন প্রতিবেদন থাকতে হবে। মেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকলেও এত বড় জনসমাগমে স্বাস্থ্যবিধি কতটা মানা যাবে, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

শেয়ার করুন :