উইমেন, পিস এন্ড সিকিউরিটি সেমিনার ২০২২ অনুষ্ঠিত

উইমেন, পিস এন্ড সিকিউরিটি সেমিনার ২০২২ অনুষ্ঠিত

(WOMEN, PEACE AND SECURITY (WPS) SEMINAR-2022 HELD)

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : বিগত দশকে বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে একটি রোল মডেল হিসাবে দাড়িয়েছে। দেশের জনসংখ্যার অর্ধেক নারী এবং তাদের অর্থনৈতিক অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাষ্ট্র গঠনের শুরুতে সঠিকভাবে চিহ্নিত করেছেন যে ‘‘জাতীয় জীবনের সকল ক্ষেত্রে’’ সমান সুযোগ প্রদানের মাধ্যমে নারীর সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা ছাড়া আমরা কাঙ্খিত স্তরে থাকতে পারব না। নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, সংসদ উপনেতাসহ মহান জাতীয় সংসদে নারীদের প্রতিনিধিত্ব যে কোন দেশের জন্য অনুকরনীয়। বাংলাদেশের নারীরা সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দক্ষতা ও সুনামের সাথে কাজ করছে। বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী শান্তিরক্ষী মিশনের অস্থিতিশীল নিরাপত্তা পরিস্থিতিতে শান্তিরক্ষী হিসেবে নারীদের নিয়োগ করে নারীর ক্ষমতায়নে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। অন্যদিকে ২০২২ সালে Women, Peace and Security Chief of Defence (WPS CHODS) Network এর চেয়ারম্যান হিসেবে প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ কর্তৃক দায়িত্ব গ্রহণ করার কথা রয়েছে। উক্ত বিষয়সমূহকে উপজীব্য ধরে ১২ জানুয়ারি বুধবার কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশে Women, Peace and Security বিষয়ক একটি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। খবর আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর)

আয়োজিতব্য সেমিনারে কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনায় অংশগ্রহনকারীর সংখ্যা যথা সম্ভব সীমিত রাখার পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়। এছাড়াও WPS সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা করার জন্য সরকারী কর্মকর্তা, সশস্ত্র বাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর কর্মকর্তাবৃন্দ, শিক্ষাবিদ, নারী কর্মী এবং উক্ত বিষয়ে বিশেষজ্ঞবৃন্দকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এছাড়াও WPS CHODS Network এর সদস্য রাষ্ট্রসমূহকে Virtually অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। দিনব্যাপী এই সেমিনারে জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া শিক্ষা মন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি, এমপি বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

দিনব্যাপী এই সেমিনারে সরকারী কর্মকর্তা, সশস্ত্র বাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর কর্মকর্তাবৃন্দ, শিক্ষাবিদগণ এবং উক্ত বিষয়ে বিশেষজ্ঞবৃন্দ কর্তৃক ধারাবাহিকভাবে উপস্থাপন/আলোচনা করেন। উক্ত সেমিনারে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বাহিনী/সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয় ও বিদেশী সংস্থা হতে সামরিক ও অসামরিক প্রায় ৩০০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। এই ধরনের সেমিনার জাতীয় পর্যায়ে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। আলোচনা শেষে, Women, Peace and Security (WPS) Seminar একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে বলে সকলে আশা প্রকাশ করেন।

 

শেয়ার করুন :