কেমন যাবে ২০২২

নিজের ভাগ্য নিজেই নিয়ন্ত্রণ করা যায় শতকরা ৯০ থেকে ৯৬ ভাগ। বাকিটা ফেট বা নিয়তি। কোন রাশির জাতকের জন্য ২০২২ সাল কেমন যাবে—

মেষ
২১ মার্চ-২০ এপ্রিল। ভর # ৬

আইনস্টাইনের থিওরি অব রিলেটিভিটি বা আপেক্ষিকতার সূত্র এই কথাই জানাচ্ছে যে প্রকৃত অর্থে সময় বলতে কিছু নেই। মানুষের মনের একটা অনুভূতির নামই সময়। তবু আমরা একটা দাগ মেনে চলি। না হলে জীবন অচল হয়ে যায়। রাশিফলের সঙ্গে এই দাগের আত্মিক যোগাযোগ। সে হিসেবে আমরা বলতে পারি, মেষ হচ্ছে তারুণ্যের প্রতীক। নতুন বছর ২০২২-এ এসে মেষের জীবনে ঘটবে এক নতুন ভোরের উন্মেষ। সামনে অনেক সাফল্য, অনেক আনন্দ। মেষ, আপনি বিনা দ্বিধায় আপনার অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখুন। আমরা আপনার সঙ্গেই আছি।

বৃষ
২১ এপ্রিল-২১ মে। ভর # ১

বৃষ যেন এক অসীম সৌন্দর্যের প্রতীক। সবাই তাঁর ফ্যাশনকে অনুসরণ করে। এদিকে আবার বৃষ নারী-পুরুষের রয়েছে কৃষিচর্চার দিকে ঝোঁক। কাজেই পেশা হিসেবে বৃষ যদি কৃষিকে বেছে নেন, তাহলে সবচেয়ে ভালো হবে। এ বছর কৃষি ছাড়াও তাঁর অন্যান্য ব্যবসায়ও বাম্পার ফলন হবে। চাকরিজীবীরাও প্রচুর উপার্জন করে আনন্দিত হতে পারবেন। তবে রোমান্সের ক্ষেত্রে তাঁর জীবনে কিছুটা ঘাটতি দেখা দিতে পারে। অর্থ উপার্জনের আনন্দ দিয়ে তিনি সেই ঘাটতি পুষিয়ে নিতে পারবেন। আমি ২০২২-এর জন্য সব বৃষ নারী-পুরুষের সার্বিক কল্যাণ কামনা করি। শুভ হোক!

 

মিথুন
২২ মে-২১ জুন। ভর # ৬

আপনার জীবনে এ বছর এক উজ্জ্বল দিনের সূত্রপাত ঘটবে। পেছনের সব ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে দিয়ে আপনি সামনে এগিয়ে যাবেন। আপনি এখন মনে মনে বলুন, যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলো রে। এখন আপনার অন্যের মতের ওপর নির্ভর না করলেও চলবে। নতুন অর্থাগম আপনাকে একলা চলার শক্তি জোগাবে। আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে। কেউ কেউ বলেন, টাকা নাকি কিছু নয়। কে বলে টাকা কিছু নয়! টাকা মানুষের জীবন পরিবর্তন করে দিতে পারে। টাকা ছাড়াও এখন আপনার জীবনে অনেক আনন্দ আসবে। এককথায় ২০২২ আপনার জীবনে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে। আমি আপনার কল্যাণ কামনা করি।

কর্কট
২২ জুন-২২ জুলাই। ভর # ২

কর্কটের কল্পনাশক্তি প্রবল। এই কল্পনাশক্তি দিয়ে কর্কট যেমন বড় ব্যবসায়ী হন, তেমনই বড় শিল্পীও হন। ২০২২ খ্রিষ্টাব্দে সাধারণভাবে সব কর্কট ব্যবসায়ী উন্নতি করবেন, বিশেষ করে যাঁরা শিল্প-ব্যবসায় জড়িত আছেন। তাঁরা প্রতিদানের প্রত্যাশা না করে বন্ধুর কল্যাণ কামনা করে যাবেন। এ কারণেই কর্কট এত মহৎ। এ বছর কর্কটের টাকাপয়সা উপার্জন হবে বলা যায় প্রায় বৃষ্টিধারার মতো। এর জন্য অবশ্য প্রচুর শ্রম তাঁকে দিতে হবে। তিনি তা করবেনও। তবে তাঁর মানসিক সমর্থন জোগানোর কেউ যদি থাকেন, তাহলে ভালো হয়। নিঃসঙ্গ নাবিক একা সমুদ্র পাড়ি দিতে পারে না। আমি এই নিঃসঙ্গ নাবিকের পক্ষে। জয় হোক!

সিংহ
২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট। ভর # ১

সিংহ রাশির কাঁকন ও কল্লোলকে কেন্দ্র করে বলছি, সব সিংহের জীবনে খুলেছে এক নতুন দুয়ার। নতুন আলোয় উদ্ভাসিত এই সিংহদ্বার। কথাটা তাঁদের বিশ্বাস করতে হবে। এ বছরের সাফল্য-আনন্দ দেখে তাঁদের মনে হবে, এ যেন অন্য কোনো বছরের মতো নয়। অর্থে, প্রেমে, ভালোবাসায় স্নাত হবে তাঁদের জীবন। কিছু ব্যর্থতা? আহা, সে তো থাকবেই। একে তোয়াক্কা করলে চলবে কেন? বিজয়ী সিংহ শেষ পর্যন্ত যে চূড়ান্ত বিজয় দেখাবে, সেটাই হচ্ছে মূল কথা। সিংহ তাঁর প্রবল পরাক্রম প্রদর্শন করুক, এটাই আমরা চাই!

কন্যা
২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর। ভর # ২

কন্যার জীবনে আজ জাগ্রত এক নববসন্ত। ২০২২ খ্রিষ্টাব্দেই তা ফুরিয়ে যাবে না। এর রেশ চলতেই থাকবে। কন্যার প্রতি আহ্বান, তিনি যেন তাঁর কাজ দিয়ে বছরটাকে আরও সুন্দর করে তোলেন। এই রাশিটি সম্পর্কে কিছু বলতে গেলে মনে পড়ে যায় শ্যামল মিত্রের গাওয়া সেই বিখ্যাত গানটি, কাজললতা কন্যা চলে কাঁকন বাজিয়ে, চলে গো কাঁকন বাজিয়ে।…সুসমাচার দিয়ে দিলাম, সঙ্গে দিলাম আমার অশেষ শুভাশিস।

তুলা
২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর। ভর # ২

আপনি এক মহাশক্তির উত্তরাধিকারী। এই কথাটা সব সময় আপনাকে মনে রাখতে বলি। শুভ-অশুভ মিলেই মানুষের জীবন। চলতি বছর আপনি সব অশুভকে পরাস্ত করে সামনে এগিয়ে যাবেন। স্রষ্টার ওপর আস্থা রাখুন। আস্থা রাখুন নিজের ওপর। কর্মে, ত্যাগে ও আনন্দে কেটে যাবে আপনার সারাটা বছর। ধনে-মানে-গৌরবে উজ্জ্বল হয়ে উঠবে চারদিক। আমার কথাগুলো যেদিন নিশ্চিত সফল হবে, সেদিন আপনি জানবেন যে আমার ভবিষ্যদ্বাণী ফেলনা নয়। জয় হোক তুলার! শুভ হোক জীবন আপনার!

বৃশ্চিক
২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর। ভর # ২

আমার লেখা হাত দেখার একটা বই বের করেছে প্রথমা প্রকাশন। বইটি প্রথমার সব কটি আউটলেটে পাওয়া যায়। ছোট এক শ পৃষ্ঠার বই। তাতে অনেক ইন্টারেস্টিং কেস হিস্ট্রি আপনি পাবেন। এই বই পড়লে আপনার আলোচ্য বছর কেমন যাবে, তা বুঝতে সুবিধা হবে। বইটিতে আমি বৃশ্চিককে একটি মহান রাশি হিসেবে উল্লেখ করেছি। বছর শেষে আপনার মনে হবে যে সারা বছরের শ্রম বিফলে যায়নি। আপনি আনন্দিত হয়ে উঠবেন। শুভকামনা রইল। বিশেষ করে বলতে চাই, এ বছর আপনার রোমান্সের বৃক্ষে নতুন নতুন ফুল ফুটবে। ফুটলে সময়মতো আমরা যেন তার খবর পাই।

ধনু
২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর। ভর # ৯

প্রিয় ধনু, সারাটা জীবন আপনি সাহসের বন্দনা করে গেলেন। এই সাহস নিয়ে আপনি দুরূহ অতীতকে অতিক্রম করেছেন…আগামী দিনেও করবেন, এই আমার বিশ্বাস। যদি না পারেন, তাহলে আমাকে এসে কিছু তিরস্কার করে যাবেন। আপনার জন্য ২০২২ হতে যাচ্ছে একটি সুনির্বাচিত বছর। বছরটিতে আপনি পাবেন বেশি, হারাবেন কম। এর চেয়ে বেশি কিছু তো আর বলার থাকতে পারে না। তখন আপনি বলবেন, দেড়ে জ্যোতিষীর বেড়ে কাজ!

মকর
২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি। ভর # ৩

২০২২-এ এসে আপনার জীবনে একটি নতুন পৃষ্ঠা ওলটানো হবে। নতুন নতুন মুখ, নতুন নতুন বন্ধুবান্ধব। চারদিকে নতুন মুখের সমাহার। পয়সা আসবে দেদার, খরচও হবে একইভাবে। কাজ, সাফল্য ও আনন্দে প্লাবিত হবে জীবনের নদীগুলো। রোমান্সের পালে লাগবে নতুন হাওয়া। তখন আমাদের কথাটা যেন মনে রাখবেন। আমরাও আপনার বন্ধু।

কুম্ভ
২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি। ভর # ৯

২০২২-এ এসে কুম্ভর শীতকালীন নিদ্রা ভাঙবে। গভীর ঘুম ভেঙে তাঁকে অনেক অনেক কাজ করতে হবে। কাজ মানেই তো সাফল্য। অনেক অনেক কাজ করে কেউ বিফল হয় না। তবে রোমান্সের ক্ষেত্রে একটু সাবধানে পা ফেলবেন। ‘একটু’ বলেছি, বেশি কিন্তু বলিনি।

মীন
১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ। ভর # ৩

মীন জাতক-জাতিকার মধ্যে ২০২২-এ সঞ্চারিত হবে তারুণ্যের এক নতুন শক্তি ও চঞ্চলতা। অতীতের ঘুম থেকে জেগে উঠে তাঁরা নিজেদের আবিষ্কার করবেন এক নতুন সুন্দর পৃথিবীতে। তাঁদের চেষ্টা করতে হবে এই নতুন পৃথিবীর উপযুক্ত হতে। মীন, দেখিয়ে দিন সবাইকে যে আপনিও পারেন

শেয়ার করুন :