রাজনীতিতে মৌলিক পরিবর্তন প্রয়োজন

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : স্বাধীনতার ৫০ বছর অতিক্রান্ত হলেও জনগণের আকাঙ্ক্ষা ভিত্তিক কোন রাষ্ট্র ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। উপনিবেশিক শাসন ব্যবস্থার কারণে জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ভিত্তিক রাজনৈতিক অর্থনৈতিক পরিকল্পনা ও নীতি-কৌশল প্রণয়নের কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। ফলে সমাজদেহে দুর্নীতি সন্ত্রাস সাম্প্রদায়িকতা সহ বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিচ্ছে রাষ্ট্রের প্রয়োজনীয় মৌলিক পরিবর্তনের বিষয়টি আড়ালে চলে যাচ্ছে। জাতীয় রাজনীতিতে মৌলিক পরিবর্তনের প্রয়োজনে নতুন ‘রাজনৈতিক প্রযুক্তি’ গড়ে উঠছে না।

বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ কর্ম ও পেশায় নিয়োজিত। এটা বাংলাদেশের মানুষের জন্য একটি মৌলিক ও নতুন ধরনের বৈশিষ্ট্য। কিন্তু এই জনগোষ্ঠীকে রাষ্ট্রীয় রাজনীতিতে সম্পৃক্ত করার কোন ব্যবস্থা নেই। জাতীয় সংসদ, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা, শিল্প কারখানা সহ সকল ব্যবস্থাপনায় শ্রম কর্ম ও পেশার প্রতিনিধি সম্পৃক্ত করে নতুন রাজনৈতিক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। এই নতুন রাজনৈতিক ব্যবস্থাপনা হবে স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নের উপযোগী রাজনীতি।এ রাজনীতি হবে শাসনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এবং শাসনতন্ত্র ভিত্তিক।

ঐতিহাসিক ১৬ ডিসেম্বর হানাদার মুক্তি দিবস এবং শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে ১৫ ডিসেম্বর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি কর্তৃক আয়োজিত কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় জেএসডি নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত বক্তব্য প্রদান করেন।

জেএসডির কার্যকরী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ সিরাজ মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ছানোয়ার হোসেন তালুকদার, কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন,সহ সভাপতি এডভোকেট কে এম জাবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, এডভোকেট সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, আবদুল্লাহ আল তারেক, সামছুল আলম নিক্সন, মহানগর নেতা আবুল মোবারক, মোশাররফ হোসেন, কামরুল আহসান অপু, মুসফিকুর রহমান সাজু,শ্রমিক নেতা এম এ আউয়াল, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি তৌফিক উজ জামান পীরাচা প্রমুখ।

 

শেয়ার করুন :