গণফোরাম এর ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল

আকাশছোঁয়া ডেস্ক :  জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং শান্তির প্রতীক কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে জাঁকজমকপূর্ন ভাবে উদ্বোধন করা হয় গণফোরাম এর ৬ষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিল-২০২১। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ৩ ডিসেম্বর সকাল ১০টায়  এ কাউন্সিলের উদ্বোধ করা হয়।

জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টু।

উদ্বোধনী ঘোষনায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, অনেক বাধা-বিগ্ন ও প্রতিকুলতার মধ্য দিয়ে আজকের এই জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমরা এই সুন্দর সময়ের জন্যই অপেক্ষা করছিলাম। গণফোরাম যখনি সংগঠিত হয়ে দেশবাসি তথা সাধারণ মানুষের দাবী নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে তখনি অদৃশ্যভাবে বাধার সম্মুখিন হয়েছি। আজ সমস্ত বাধা অবরোধ ছিন্নকরে গণফোরাম নতুন প্রত্যায়ে এগিয়ে যাওয়ার শপথ নিবে।

কাউন্সিলে গণফোরামের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ড. কামাল হোসেন তার বিশেষ দূত ও চিঠির মাধ্যমে এই কাউন্সিলের সাফল্য কামনা করেছেন। তিনি গুরুতর অসুস্থতার কারনে কাউন্সিলে উপস্থিত থাকতে না পারার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন এবং দলীয় ঐক্য সুদৃঢ় করে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় কাজ করার আহŸান জানান।

উদ্বোধনী ঘোষনায় মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন, আমরা মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় এই বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে চাই। আইনের শাসন ও সমাজের সর্বস্তরে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। আগামী দিনে ছাত্র, যুব, কৃষক-শ্রমিক, মহিলাদের বিভিন্ন দাবী নিয়ে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলবো। চলমান এই সংকট কাটিয়ে শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সমমনা অন্যান্য বিরোধী দলের সাথে জাতীয় ও আঞ্চলিক বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলবো।

কাউন্সিলে সারাদেশের ৫২ টি জেলা থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

কাউন্সিলে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সুধীজনের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ড. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, আ স ম আব্দুর রব, বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দীকী, মাহমুদুর রহমান মান্না, দিলারা চৌধুরী, সাইফুল হক, মনিরুল হক চৌধুরী, তানিয়া রব, আব্দুছ্ ছালাম, শাহ্ আহমেদ বাদল, গণফোরামের পক্ষে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা মোহসীন মন্টু, এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, এডভোকেট মোহসীন রশিদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক। শোক প্রস্তাব পাঠ করেন আইয়ুব খান ফারুক।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ বলেন, দেশ আজ চরম ক্লান্তিকাল অতিক্রম করছে। জাতীর ইতিহাসে রাষ্ট্রীয় ও সমাজ জীবনে এমন অব্যবস্থাপনা কখনো পরিলক্ষিত হয়নি। এই অবস্থা থেকে দেশ ও জাতি মুক্তি চায়। শাসন ব্যবস্থায় পরিবর্তন চায়। সরকার আপাদমস্তক দূর্নীতি ও স্বজন প্রীতির সাথে যুক্ত। রাষ্ট্রীয় অর্থ ও সম্পদ লুন্ঠন করে নিচ্ছে মুষ্টিমেয় কিছু লুটেরা। আমরা এই অবস্থা চলতে দিতে পারিনা। জনগণ ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে এই সরকারের বিরুদ্ধে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য। আন্দোলন সংগ্রামে আমরা বিজয়ী হবো।

বিকাল ৩টায় কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়। কাউন্সিল অধিবেশনে রাজনৈতিক, সাংগঠনিক ও অর্থবিষয়ক রিপোর্ট উপস্থাপন করা হয়। রিপোর্টের উপর বিভিন্ন জেলা উপজেলা নেতারা আলোচনা করেন।

 

শেয়ার করুন :