দেশের বিভিন্ন এলাকায় পূজা মণ্ডপে হামলা-ভাংচুরের তীব্র নিন্দা এবং দোষীদের বিচার দাবি

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : কুমিল্লা শহরে দুর্গা পূজায় কথিত ‘কোরান শরীফ অবমাননা’র ঘটনার রেশ ধরে কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পূজা মণ্ডপে হামলা-ভাংচুর এবং হতাহতের তীব্র নিন্দা এবং প্রকৃত দোষীদের বিচারের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (মার্কসবাদী)’র ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়কারী কমরেড ফখরুদ্দিন কবির আতিক।

তিনি ১৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কুমিল্লা শহরের একটি পূজা মণ্ডপে রাতের আঁধারে কারা কী উদ্দেশ্যে কোরান শরীফ রেখে গেছে, তা দ্রুততম সময়ে প্রশাসন খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিতে পারত। ঘটনা পুলিশকে অবহিত করার পরও সাম্প্রদায়িক শক্তি সমবেত হয়ে বিভিন্ন মন্দিরে যে হামলা চালাতে পারল, তাতে পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসনের ব্যর্থতা প্রমাণিত হয়। এই ঘটনার পরবর্তীতে দেশের বিভিন্ন এলাকায় পূজা মণ্ডপে হামলা-ভাংচুর প্রমাণ করে সরকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছে। গত কয়েক বছরে বহু সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটেছে। প্রতিটা ক্ষেত্রেই গুজব ছড়িয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মন্দির, বাড়িঘর হামলা-ভাংচুর লুটপাট সংঘটিত হয়েছে। প্রায় সবগুলো ঘটনাতে পুলিশ প্রশাসন আগে থেকে জানলেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে। অনেক ক্ষেত্রেই সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের ইন্ধনে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রমাণ পাওয়া গেলেও তাদের কোনো বিচার হয়নি।”

তিনি বিবৃতিতে আরও বলেন, “বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের ভোটাধিকার, মতপ্রকাশের অধিকারসহ সমস্ত গণতান্ত্রিক অধিকার নির্মমভাবে দমন করেছে। অন্যদিকে দ্রব্যমূল্য আকাশছোঁয়া, মেগাপ্রকল্পের নামে ব্যাপক দুর্নীতি-লুটপাট জনগণের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। সরকার জনগণের এই ক্ষোভকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে পরিকল্পিতভাবে দেশে ধর্মীয় উন্মাদনা তৈরি করছে। অপরদিকে ভারতের হিন্দুত্ববাদী ফ্যাসিস্ট বিজেপি সরকারের সাথে দহরম—মহরম জনগণের ক্ষোভকে সাম্প্রদায়িক রূপ লাভ করতে সহায়তা করেছে। ফলে প্রায় প্রায়ই দেশে এ ধরনের সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটছে।”

তিনি বলেন, “সাম্প্রতিক দুর্গা পূজার মন্দিরে হামলা ভাংচুরসহ অতীতের সকল সাম্প্রদায়িক সহিংসতার জন্য প্রকৃতপক্ষে বর্তমান সরকার দায়ী। ফলে এসকল মধ্যযুগীয় বর্বরতা থেকে দেশকে মুক্ত করতে হলে মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক শক্তি এবং তার হোতা বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে দেশের আপামর অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক, প্রগতিশীল মানুষ ও সংগঠনের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা প্রয়োজন।”

তিনি অবিলম্বে কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পূজা মণ্ডপে সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার এবং দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে সকল অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক, প্রগতিশীল মানুষকে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন :