১০ অক্টোবর থেকে সৌদিতে প্রবাসীদের জন্য নতুন নির্দেশনা

নিউজ ডেস্ক: শুধু করোনা ভ্যাকসিনের সম্পূর্ণ ডোজ গ্রহণকারীরা এখন থেকে সরকারি-বেসরকারি যেকোনো প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করতে পারবেন-এমন বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সৌদি আরব। তবে (ফাইজার, অ্যাস্ট্র্যাজেনেকা, মডার্নার) শুধু এক ডোজ টিকা গ্রহণকারী কিংবা করোনামুক্ত হয়েছেন কিন্তু টিকা নেননি এমন ব্যক্তিরা এসব প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করতে পারবেন না। আজ শনিবার দেশটির স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, এই নিয়ম আগামী ১০ অক্টোবর সকাল ৬টা থেকে কার্যকর হবে।

সৌদি স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য হবে যেকোনো প্রকার আর্থিক, ব্যবসায়িক, সাংস্কৃতিক, বিনোদনমূলক, স্পোর্টস প্রতিষ্ঠানে প্রবেশের ক্ষেত্রে, বিমানে আরোহণ ও গণপরিবহন ব্যবহারের ক্ষেত্রে। যেকোনো প্রকার সাংস্কৃতিক, বিনোদনমূলক, সামাজিক, শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানে প্রবেশের ক্ষেত্রেও।

এদিকে, নতুন এই নির্দেশনা জানা না থাকায় অনেক প্রবাসীকে ফেরত যেতে হচ্ছে বিমানবন্দর থেকেই। সম্প্রতি সৌদি সিভিল অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষ তাদের কোয়ারেন্টিন নীতিমালায় পরিবর্তন এনেছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, এখন থেকে সৌদি আরবে প্রবেশের ক্ষেত্রে এক ডোজ টিকা নেওয়া থাকলেও পাঁচদিন নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এর আগে এক ডোজ টিকা নিয়ে সৌদি আরবে প্রবেশ করা গেলেও নতুন এই শর্তে সেই সুযোগ আর থাকছে না।

সৌদি সিভিল অ্যাভিয়েশনের নতুন শর্তে বলা হয়েছে, সৌদি আরব থেকে এক ডোজ টিকা নিয়ে যেসব নন-সৌদি নাগরিক, ছুটিতে গিয়েছিলেন তাদের ফেরার সময় কোয়ারেন্টিন প্যাকেজ গ্রহণ করতে হবে।

তবে সৌদিতে এক ডোজ নিয়ে কেউ যদি বাংলাদেশ থেকে অপর ডোজ গ্রহণ করেন, সে ক্ষেত্রে কি হবে, সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি।

নতুন এই সিদ্ধান্তের কারণে যারা এক ডোজ টিকা নিয়ে দেশে গিয়েছেন তারা দুর্ভোগে পড়েছেন। ভিসার মেয়াদ না থাকায় অনেকে তাই কোয়ারেন্টিন প্যাকেজের জন্য গুণছেন বাড়তি ৪৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা।

শেয়ার করুন :