মোবাইল নেটওয়ার্ক এবং ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট স্পিড নিয়ে দেশজুড়ে মহাচুরি চলছে

এস এম হৃদয় রহমান : বর্তমানে দেশের জনপ্রিয় যোগাযোগ সেবা হচ্ছে ইন্টারনেট। ইন্টারনেট সেবার ক্ষেত্রে নেটওয়ার্ক একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী মোবাইল এবং ব্রডব্যান্ডে বাংলাদেশে বর্তমানে ফোরজি গতির ইন্টারনেট চলমান রয়েছে কিন্তু বাস্তবতার দিক থেকে বিবেচনা করলে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের প্রায় সব জায়গায় মোবাইলে থ্রিজি ইন্টারনেট সেবাও ঠিকমত সব স্থানে পাওয়া যায় না। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডাররা যে ইন্টারনেট স্পিড গ্রাহকদেরকে দেয়ার কথা সেটা ঠিকমত দেয় না বললেই চলে।

বর্তমান সরকার ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে একদেশ একরেট চালু করেছে। মাসের পরে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডাররা রেট ঠিকমত গ্রাহকদের কাছ থেকে নিচ্ছে কিন্তু ইন্টারনেট স্পিড ঠিকমত গ্রাহকদেরকে দিচ্ছে না। আপলোড এবং ডাউনলোড স্পিডের আকাশপাতাল ব্যবধান; কম্পিউটারে এবং স্মার্টফোনে ইন্টারনেট স্পিডের ব্যবধানতো রয়েছেই। এই মহাচুরি থেকে পরিত্রাণের উপায় বের করা দরকার। বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টেলিটকের ইন্টারনেট সেবা গ্রামাঞ্চলে থ্রিজিও ঠিকমত পাওয়া যায় না।

বাসা বা অফিস ভবনের দ্বিতীয় তলায়, তৃতীয় তলায় আরও উপরে নেটওয়ার্ক কিছু পাওয়া গেলেও নিচতলায় টুজি নেটওয়ার্কও ঠিকমত পাওয়া যায়না। টুজি নেটওয়ার্ক টিক টিক করে উঠানামা করে থাকে। রবি-এয়ারটেল, গ্রামীণফোন, বাংলালিংকের ফোরজি নেটওয়ার্ক দ্বিতীয় তলা, তৃতীয় তলা এবং আরও উপরে কিছুটা থাকলেও নিচ তলায় থ্রিজিও ঠিকমত পাওয়া যায় না; নেটওয়ার্ক ওঠানামা করে। এই উপরতলা আর নিচতলা এবং নেটওয়ার্ক ওঠানামার এই নেটওয়ার্ক জটিলতা ও সেবার নামে চুরির সমস্যা সারা বাংলাদেশ জুড়ে বিস্তৃত! যদি নেটওয়ার্কই ঠিকমত বিস্তার না হয় এবং ওঠানামা করে তাহলে ইন্টারনেট সেবা বাস্তবে কি দুরঅবস্থায় আছে তা বুঝাই যাচ্ছে !

ইন্টারনেটের মাধ্যমে এখন বেশিরভাগ অফিস আদালতের কাজ, অনলাইন ক্লাস, ব্যাংকের লেনদেন সব হচ্ছে কিন্তু নেটওয়ার্ক জটিলতার কারণে এই সব কাজ করতে গিয়ে মানুষকে বেগ পোহাতে হচ্ছে। এটিএম বুথে টাকা তুলতে গেলে ইন্টারনেটের ধীরগতির কারণে বেশিরভাগ মানুষকে বেগ পোহাতে হয়। বর্তমান সরকার ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটে একদেশ একরেট যেভাবে বাস্তবায়ন করেছে, ঠিক সেই ভাবে একদেশ নিরবিচ্ছিন্ন উঠানামাহীন স্বচ্ছ নেটওয়ার্ক ও মোবাইলফোন অপারেটর এবং ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের মহাচুরিবিহীন ইন্টারনেট ও মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবা বাস্তবায়ন করবে সেটাই জনগনের প্রত্যাশা।

লেখক : ফ্রিল্যান্স সংবাদকর্মী।

শেয়ার করুন :