রাজধানী দখলে নেওয়ার পর কাবুল বিমানবন্দরে মার্কিন সেনাদের ফাঁকা গুলি

নিউজ ডেস্ক: তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী দখলে নেওয়ার পর কাবুল বিমানবন্দরে ফাঁকা গুলি ছুড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা। আজ সোমবার কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এ গুলির ঘটনা ঘটে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এমনটাই বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তার জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দরে প্লেনে উঠার সময় লোকজনের ভিড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। তাই বিশৃঙ্খলা এড়াতে ফাঁকা গুলি ছোড়েন মার্কিন সেনারা।

রয়টার্স জানিয়েছে, গতকাল রোববার দিনব্যাপী উত্তেজনার মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলে নেয় তালেবান। এরপর থেকেই ভয় আর আতঙ্কে দেশের মাটি ছাড়ছেন আফগানরা। কাল সকাল থেকে কাবুল বিমানবন্দরে কয়েক লাখ মানুষ ভিড় করছেন। অনেকে বিমানে চড়তে পারলেও এখনো বহু মানুষ অপেক্ষা করছেন সেখানে। বেসামরিক লোকজন ও দূতাবাস কর্মীদের নিরাপদে দেশত্যাগে যুক্তরাষ্ট্রের মোতায়েন করা সেনাবাহিনীর সদস্যরা বিমানবন্দরে কাজ করছেন।

এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‌‘আমি এখানে ভয়ের মধ্যে আছি। তারা বারবার গুলি ছুড়ছেন।’

এএফপির খবরে বলা হয়েছে, বহু ফটোজার্নালিস্ট আফগানিস্তানের বিমানবন্দরে জড়ো হয়েছেন। তারা ভয়ভীতি নিয়ে বিমানবন্দর হয়ে লোকজনের দেশত্যাগের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ঘটনার সময় টারম্যাকে থাকা কয়েক হাজার আফগান নাগরিক দেশটি ছাড়ার প্রস্তুতি নেওয়া একটি উড়োজাহাজে ওঠার জন্য হুড়োহুড়ি শুরু করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লাইটগুলোতে দূতাবাসকর্মীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এতে অন্যদের মধ্যে ক্ষুব্ধতা তৈরি হচ্ছে, আর তাতে আরও বিশৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে এবং বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে বলে বিবিসি জানিয়েছে।

শেয়ার করুন :