অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় করোনা আক্রান্ত হয়ে বিচারকের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক: ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সানিয়া আক্তার (২৮) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

বুধবার বেলা সাড়ে এগারটায় বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ঝালকাঠি জেলা জজ আদালতের নাজির মো.আবুল কালাম আজাদ সানিয়া আক্তারের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সানিয়া আক্তার এবং তার স্বামী একই আদালতের বিচারক এ.এইচ.এম ইমরানুর রহমান গত ১২ জুলাই করোনা আক্রান্ত হন। এরপর সানিয়া আক্তারের শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে তাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করানো হয়।

সানিয়া আক্তার সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। সানিয়া আক্তারের বাড়ি নারয়ণগঞ্জের আড়াই হাজার উপজেলার হোগলাকান্দা গ্রামে। তার বাবার নাম আব্দুর রশিদ।

ঝালকাঠি চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সেলিম জাহান জানান, বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসের ১০ম ব্যাচের বিচারক সানিয়ার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় গত ১৪ জুলাই তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

সেখানেই তার চিকিৎসা চলছিল। আজ সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তার শ্বশুর বাড়ি বরিশাল জেলার মুলাদি উপজেলার টুংচর গ্রামে।

সানিয়ার স্বামী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ.এইচ.এম ইমরানুর রহমান জানান, আজ বিকেলে সানিয়া আক্তারের মরদেহ নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গ্রমের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে নামাজে জানাজা শেষে লাশ আমার বরিশালের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হবে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার মুলাদি উপজেলার টুংচর গ্রামে সানিয়ার লাশ দাফন করা হবে।

শেয়ার করুন :