করোনায় একজন রোগীর মৃত্যু হলেও চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে পুরো পরিবারের মৃত্যু ঘটে

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : করোনায় একজন রোগীর মৃত্যু হলেও চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে পুরো পরিবারের মৃত্যু ঘটে এবং এর জন্য সরকারের অব্যবস্থাপনাই দায়ী বলে জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে বীর উত্তম মেজর এটিএম হায়দার মিলনায়তনে “করোনা সংক্রমণের ভয়াবহতার প্রেক্ষাপটে করণীয়” বিষয়ে এক নাগরিক সাংবাদিক সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন কালে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আইসিইউ পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি সহ অক্সিজেন ও অন্যান্য ঔষধ সামগ্রীর উপর অত্যাধিক পরিমাণ ট্যাক্স থাকায় চিকিৎসা ব্যয় অত্যন্ত বেড়ে যায় বলে তিনি উল্লেখ করেন। সরকারিভাবে যথাযথ নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে ওষুধের মূল্য এক তৃতীয়াংশে নামিয়ে আনা সম্ভব বলেও তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। এছাড়া দেশের এমন পরিস্থিতিতে ড. বিজন কুমার শীলের মতো বিজ্ঞানীর প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে তাঁকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে তিনি সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলুর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে জুমের মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল এবং বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্টাল লয়ারস এ্যাসোসিয়েশনের (বেলা) নির্বাহী পরিচালক এডভোকেট সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান।

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান, মুক্তিযোদ্ধা ইসতিয়াক আজিজ উলফাত, পানি বিশেষজ্ঞ ম ইনামুল হক, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি নূরুল হক নূর, ভাসানী অনুসারী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য নাঈম জাহাঙ্গীর, রাষ্ট্র চিন্তার দিদারুল ভুঁইয়া প্রমুখ।

 

শেয়ার করুন :