যে কারনে উদ্বিগ্ন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাজ্যে পুলিশের হাতে সারাহ ইভারার্ড নামে এক নারীর মৃত্যু ঘটনায় বিক্ষোভ চলছে দেশটিতে। এই ঘটনার প্রতিবাদে গত শনিবার (১৩ মার্চ) দিবাগত রাতে সড়কে অবস্থান করেছে বিক্ষোভকারীরা। সেখানেও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আজ সোমবার (১৫ মার্চ) নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে এক বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

সড়কে অবস্থানকালে অপ্রীতিকর ঘটনায় গভীরভাবে উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন বরিস। এদিন কয়েকজন নারীকে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে ক্ল্যাপহ্যাম কমন এলাকা থেকে সরিয়ে দেয় পুলিশ। এরপরেই জানানো হয়, নারীদের নিরাপত্তা নিয়ে ক্রাইম এন্ড জাস্টিস টাস্কফোর্সের সঙ্গে বৈঠক করবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেছেন, নারীদের বিরুদ্ধে সংঘটিত সহিংসতা রোধের সংকল্পে আমাদের ঐক্যবদ্ধ করবে সারাহ ইভারার্ডের মৃত্যু।

জানা গেছে, শনিবার দিবাগত রাতে শত শত মানুষ দক্ষিণ লন্ডনের ক্ল্যাপহ্যাম কমনে জড়ো হয়। তারা সারাহ এর স্মরণে রাত্রিকালীন অবস্থানে যোগ দিতে এসেছিলেন। এখান থেকে চারজনকে আটক করে পুলিশ।

গত ৩ মার্চ সারাহ ইভারার্ড বন্ধুর বাড়ি থেকে ফেরার পথে নিখোঁজ হন। পরে কেন্টের উডল্যান্ডে তার দেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় অপহরণ ও খুনের অভিযোগ উঠেছে ৪৮ বছর বয়সী পুলিশ অফিসার ওয়েন কোজেন্সের বিরুদ্ধে।

শেয়ার করুন :