মিয়ানমারে আবারও ইন্টারনেট বন্ধ

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : মিয়ানমারে টানা দ্বিতীয় রাতের মতো ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে রেখেছে সামরিক শাসন। স্থানীয় সময় সোমবার দিবাগত রাত ১টা থেকে ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে দ্য হিদুস্তান টাইমস।

জানা যায়, মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো বন্ধ করা হলো ইন্টারনেট সংযোগ। অনলাইনে ভিন্নমত দমনের চেষ্টা হিসেবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। ইন্টারনেট বন্ধ ছাড়াও অভ্যুত্থানের নেতাদের বিরোধিতা বন্ধে বেশ কিছু আইনি সংস্কার করা হয়েছে দেশটিতে।

সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে মিয়ানমারে প্রতিদিনই জোরালো হচ্ছে বিক্ষোভ। আটককৃত ডি ফ্যাক্টো নেতা অং সান সু চিসহ নির্বাচিত নেতাদের মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবি তুলেছেন মিয়ানমারের সাধারণ জনগণ। বিক্ষোভের বাইরে জান্তা সরকারের বিষফোঁড়ার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে অভ্যুত্থানকারীদের প্রতি জনগণের প্রকাশ্য অবাধ্যতা। সামরিক শাসনের অবসান এবং বেসামরিক রাজনীতিকদের মুক্তির দাবিতে কর্মবিরতি পালন করছে হাজার হাজার সরকারি চাকরিজীবি।

নাগরিক এই অসহযোগ আন্দোলন সংগঠিত করার অন্যতম প্লাটফর্ম ফেসবুক। যার কারণে অভ্যুত্থানের পরেই ফেসবুকে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। এছাড়া টুইটার ও ইন্সটাগ্রামের ব্যবহারও বিঘ্নিত হচ্ছে মিয়ানমারে।

মিয়ানমারের অন্যতম বড় টেলিকম সেবাদাতা টেলিনর জানিয়েছে, প্রবেশ বন্ধ রাখা ওয়েবসাইটের তালিকা আর হালনাগাদ করা হবে না। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, পরিস্থিতি বিভ্রান্তিকর ও অস্পষ্ট। আর তারা কর্মীদের নিরাপত্তাকেই সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছে।

মিয়ানমারের রাজপথগুলোতে সেনা উপস্থিতি ক্রমেই বাড়ছে। কৌশলগত বহু স্থানে পুলিশের জায়গা নিয়ে নিচ্ছে সেনা সদস্যরা। মূল শহর ইয়াঙ্গুনে ব্যস্ত সময়ে রাজপথে দ্রুত গতিতে চলাচল করেছে আট চাকার সামরিক গাড়ি। তবে এসব গাড়ির চারপাশে থাকা গাড়ি থেকে হর্ন বাজিয়ে অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ দেখানো হয়েছে।

 

শেয়ার করুন :