বিমান বাহিনীর বরিশাল র‌্যাডার ইউনিট ও হেলিকপ্টার সিমুলেটর ট্রেনিং ইন্সটিটিউট উদ্বোধন

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর “বরিশাল র‌্যাডার ইউনিট” এবং ‘‘হেলিকপ্টার সিমুলেটর ট্রেনিং ইন্সটিটিউট” এর শুভ উদ্বোধন ১৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার বরিশাল ও বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশার ঢাকায় একযোগে অনুষ্ঠিত হয়। খবর আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এর।

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বঙ্গভবন হতে ভিডিও টেলি কনফারেন্স (ভিটিসি) এর মাধ্যমে যুক্ত হয়ে  বিমান বাহিনী বরিশাল র‌্যাডার ইউনিট এবং হেলিকপ্টার সিমুলেটর ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এর উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রপতি ভিডিও টেলি কনফারেন্স এর মাধ্যমে যুক্ত হলে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত, বিবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি বিমান বাহিনীর বরিশাল র‌্যাডার ইউনিট থেকে তাকে স্বাগত জানান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বিমান বাহিনীর একটি চৌকস কন্টিনজেন্ট রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদকে রাষ্ট্রীয় সালাম প্রদান করেন। রাষ্ট্রপতি সালাম গ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথি তার ভাষণের শুরুতে পরম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যার নির্দেশে পরিচালিত দীর্ঘ নয় মাসের মুক্তি যুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয় আমাদের প্রিয় স্বাধীনতা।

তিনি আরও স্মরণ করেন, বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমানসহ মহান মুক্তি যুদ্ধের সকল শহীদ ও বীর মুক্তি যোদ্ধাকে। ভাষণে তিনি উল্লেখ করেন, জাতির পিতার কাঙ্খিত আদলে বিমান বাহিনীকে গড়ে তোলার জন্য তারই সুযোগ্য উত্তরসূরি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাহিনীতে নতুন নতুন স্থাপনা ও যুদ্ধোপকরণ সংযোজন করে চলেছেন এবং এরই ধারাবাহিকতায় আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রা শুরু করলো বরিশাল র‌্যাডার ইউনিট এবং হেলিকপ্টার সিমুলেটর ট্রেনিং ইন্সটিটিউট।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, নতুন অন্তর্ভুক্ত র‌্যাডার বাংলাদেশের বিশাল সমুদ্রাঞ্চল তথা দেশের সমগ্র আকাশ সীমার মধ্যে সনাক্তকৃত বিমানসমূহকে সঠিক দিক নির্দেশনা প্রদান করতে এবং তাদের চলাচল ও নিয়ন্ত্রণে বিশেষ ভূমিকা পালন করতে সক্ষম হবে। পাশাপাশি তিনি আরও উল্লেখ করেন, নবনির্মিত হেলিকপ্টার সিমুলেটর ট্রেনিং ইন্সটিটিউট বিমান বাহিনীর বৈমানিক গণের উড্ডয়ন প্রশিক্ষণের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ সিমুলেটরের মাধ্যমে সম্পন্ন করবে, যা প্রশিক্ষণ ব্যয় উল্লেখ যোগ্য হারে হ্রাস করবে এবং উড্ডয়ন নিরাপত্তাকে আরও দৃঢ় করবে।

পরিশেষে তিনি এই অনুষ্ঠান আয়োজনে বিমান বাহিনী প্রধানসহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি ও বাহিনীর সকল সদস্যের সুন্দর ভবিষ্যৎ কামনা করেন।উক্ত অনুষ্ঠানে সামরিক ও বেসামরিক উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন :