আল জাজিরার অপপ্রচারের নেপথ্যে জড়িতদের খুঁজে বের করা হচ্ছে

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আল জাজিরার বিভ্রান্তিমূলক অপপ্রচারের নেপথ্যে দেশ-বিদেশে জড়িতদের খুঁজে বের করা হচ্ছে। খবর বাসসের।

তিনি বলেন, অতীতেও শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও গুজব ছড়ানো হয়েছিলো, যা পরে মিথ্যা প্রমাণিত হয়। আল জাজিরার আজগুবি রিপোর্টও মিথ্যা বলে প্রমাণিত হবে।

ওবায়দুল কাদের ১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার তার সরকারি বাসভবনে আয়োজিত সমসাময়িক ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন।
দেশে-বিদেশে একটি রাজনৈতিক স্বার্থান্বেষী মহল সরকার ও আওয়ামী লীগের ঐক্যে ফাঁটল ধরানোর জন্য সুগভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের মাটি ও মানুষের দল, এদলের শিকড় অনেক গভীরে প্রোথিত।
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সুদৃঢ়ভাবে ঐক্যবদ্ধ। এ ঐক্যে ফাঁটল ধরানোর কোন ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না বলে উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের।

১১ ফেব্রুয়ারী বসুরহাট পৌর মেয়রের গাড়ীতে হামলা প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইতোমধ্যেই চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি, সিএমপি কমিশনার ও ফেণীর পুলিশ সুপারের সাথে এ বিষয়ে কথা হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে তদন্তের মাধ্যমে সঠিক তথ্য উদঘাটন করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন।

আওয়ামী লীগের যে সব শাখায় সাংগঠনিক সংকট রয়েছে সে সব শাখায় ২১ শে ফেব্রুয়ারির পর অনুষ্ঠেয় কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় সংকট নিরসনে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের।

নেতিবাচক রাজনীতির জন্যই আন্দোলন ও নির্বাচনে বিএনপি বার বার পরাজিত, অপরদিকে শেখ হাসিনার অভূতপূর্ব উন্নয়নে জনগণ খুশি, এটাই বিএনপির অন্তরজ্বালার কারণ বলেও উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

সা¤প্রতিক পৌরসভা নির্বাচনগুলোতে বিএনপির পরাজয় হয়েছে তাদের অপরাজনীতির জন্য উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, সামনের নির্বাচনগুলোতেও পরাজয় নিশ্চিত জেনে নিজেদের রক্ষা করার জন্য অপপ্রচারে নেমেছে বিএনপি।

দেশে বিদেশে এখন বিএনপি অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র করছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, কর্মীদের রোষানল থেকে বাঁচার জন্য বিএনপি নেতারা হাকডাক দিচ্ছে, কিন্তু তাদের আন্দোলনের ডাকে জনগণের পক্ষ থেকে কোন সাড়া নেই।

টেমস নদীর ওপার থেকে ডাকা আন্দোলন পদ্মা মেঘনা যমুনায় জোয়ার আসবে না উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গত এক যুগ ধরে তাদের এ দাবি শুনছি, কিন্তু তাদের আন্দোলন এখন জনগণ দ্বারা প্রত্যাখ্যাত।
তিনি বলেন, সরকারের পদত্যাগ নয় বরং বিএনপির মত দলকে জনবিচ্ছিন্ন করার জন্য তাদের টপ টু বটম নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত।

 

শেয়ার করুন :