একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সংগ্রামী তোফাজ্জল হোসেন এর মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : কবি, লেখক, সাংবাদিক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষাসংগ্রামী তোফাজ্জল হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী ছিল ৫ ডিসেম্বর শনিবার। এ উপলক্ষ্যে মসজিদ, মাদ্রাসা ও পারিবারিকভাবে বাদ মাগরিব ‘র‌্যাংগস্ অরনি’, ফ্ল্যাট নং ডি-৩, বাড়ি নং ১৪, সড়ক নং ২৮ (পুরাতন) ১৫ (নতুন), ধানমণ্ডি, ঢাকায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছিল।

তিনি ১৯৩৫ সালে ৯ অক্টোবর কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার তালেশ্বর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৫ সালের ৫ ডিসেম্বর ইন্তেকাল করেন তিনি।

ছাত্রজীবন থেকে প্রগতিশীল রাজনীতিতে সক্রিয় তোফাজ্জল হোসেন এদেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামসহ ভাষা আন্দোলনের একজন বিশিষ্ট কবি ও গীতিকার হিসেবে ভূমিকা পালন করেছেন। ক্রীড়া, সংস্কৃতি, সাহিত্য, সাংবাদিকতাসহ জাতীয় জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছয় দশক ধরে তার বলিষ্ঠ পদচারণা ছিল। তিনি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভাষাসৈনিক সম্মাননা, পদক্ষেপ, পদাতিকের সম্মাননা ছাড়াও ঋষিজ পদক ও একুশে পদক পেয়েছেন।

সংগীত এবং অন্যান্য সৃষ্টিশীল সাহিত্যেও সমান কৃতিত্ব। ১৯৫৩ সালে কবি হাসান হাফিজুর রহমান সম্পাদিত অমর ‘একুশে ফেব্র“য়ারী’ সংকলনে ঐতিহাসিক যে দু’টি গান সংকলিত হয়েছিল তাঁর একটির ‘রক্ত শপথে আমরা আজিকে তোমারে স্মরণ করি/একুশে ফেব্রুয়ারী’ রচয়িতা তিনি।

তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থগুলো- হৃদয় রক্তরাগে, একুশ ভুবননয়, নতুন যুগের ভোরে, কবিতাসমগ্র কাব্যগ্রন্থসহ বেশ কয়েকটি গবেষণাধর্মী গ্রন্থ (জনসংখ্যা বিস্ম্ফোরণ ও আগামী পৃথিবী, শিশু :বিশ্ব ও বাংলাদেশ প্রেক্ষাপট, বিপন্ন পৃথিবী বিপন্ন জনপদ, কাশ্মীর :ইতিহাস কথা কয়, সাফল্যের সন্ধানে, জাতিসংঘ এবং লিন্ডন জনসন।

তোফাজ্জল হোসেন ফাউন্ডেশন-এর উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ- ‘আমাদেরও যুদ্ধ ছিল’, ‘রূপকথা নয়’, ‘আঙিনা থেকে দূরে’, ‘প্রতিচ্ছায়া’, ‘গল্পগুলো গল্পই’, ‘রৌদ্রকরোটিতে জমেছে দুঃখ’, ‘গোধূলি রঙের ভোর’, ‘শব্দপুরাণ ও আমি’, ‘বৃষ্টি করে নেবে,’ ‘মাসুদুর রহমানের কবিতা’, ‘প্রিয় সে নামের বানান’, ‘আছো কাছে, তবু নেই’, ‘স্বপ্নচ্যুত’, ‘অনুভূতির জানালা’ ও ‘বিষাদী দোলনচাঁপায় কাঠপোড়া গন্ধ’ অনলাইনেও ই-বুক্স আকারে প্রকাশিত হয়েছে।

 

শেয়ার করুন :