মওলানা ভাসানীর মৃত্যুবার্ষিকীতে গণসংহতি আন্দোলনের শ্রদ্ধা নিবেদন

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে টাঙ্গাইলের সন্তোষে মওলানার মাজারে ১৭ নভেম্বর মঙ্গলবার গণসংহতি আন্দোলন শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকির নেতৃত্বে শ্রদ্ধা নিবেদনকালে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল, রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ফিরোজ আহমেদ, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূইয়া, মনিরউদ্দীন পাপ্পু, কেন্দ্রীয় সদস্য দীপক রায়সহ ঢাকা ও টাঙ্গাইল জেলার নেতা-কর্মীবৃন্দ।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রাণ-প্রকৃতি, মানুষের অধিকার, জীবনের নিরাপত্তা থেকে শুরু করে আজকে যত ধরনের সংকট ও উদ্বেগ রয়েছে, তা থেকে বাঁচার লড়াইয়ের দিশা ও নেতৃত্ব হতে পারেন মাওলানা ভাসানী। এই সময়ে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক নেতৃত্ব মাওলানা হামিদ খান ভাসানী। মাওলানা ভাসানী অত্যাচার, লুটপাট, দুর্নীতির বিরুদ্ধে ভুখা মিছিল করেছিলেন। ভাসানী বাংলাদেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য তাঁর জীবনের শেষ পর্যন্ত লড়াই করে গেছেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান এবং ভবিষ্যত, জনগণের নিরাপত্তা বর্তমান ফ্যাসিবাদী সরকারের অধীনে ভয়ঙ্কর বিপদের সম্মুক্ষীন। আন্তর্জাতিকভাবেও আমাদের দেশ তার স্বার্থ রক্ষা করতে পারবে কিনা তা জাতীয় সংহতি বজায় রাখার মাঝে নির্ভর করছে। কিন্তু এই সরকার জনগণের ভোটাধিকার, বাকস্বাধীনতা, লুটপাটসহ জীবনের নিরাপত্তা হরণের মাধ্যমে দেশের জনগণকে বিভক্ত করে রেখেছে। তাই এই সরকারের পতন ও দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা নির্মাণ এখন জনগণের ন্যূনতম দাবিতে পরিণত হয়েছে। এই লক্ষ্যে দেশের সকল গণতান্ত্রিক শক্তি ও জনগণের বৃহত্তর ঐক্য গড়ে মরিয়া লড়াই করতে হবে। এই লড়াইয়ে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক নেতৃত্ব মাওলানা হামিদ খান ভাসানী

নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল বলেন, কেবল মানুষেরই অধিকারই নয়; পশুপাখিসহ সব প্রাণের অধিকার নিয়ে সোচ্চার ছিলেন মওলানা ভাসানী। প্রাণ-প্রকৃতি সবকিছু যে একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কিত, তা রাজনীতিবিদ হিসেবে প্রথম ভেবেছিলেন মাওলানা ভাসানী। মজলুমের কন্ঠস্বর মওলানা ভাসানীই বর্তমানের জনগণের যাবতীয় নিপীড়ণের বিরুদ্ধে দিশা দেখাবে।

আগামী ২০ নভেম্বর ২০২০ শাহাবাগে মওলানা ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে জননেতা জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। জনসভায় বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে দিশা হাজির করবেন।

 

শেয়ার করুন :