জিআরপি সিস্টেমের তিনটি মডিউল বাস্তবায়ন কর্মশালার উদ্বোধন

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : বাংলাদেশ সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ই- গভর্নমেন্ট ইআরপি প্রকল্পের অধীনে জিআরপি (গভর্নমেন্ট রিসোর্স প্লানিং) সফটওয়্যারের তিনটি মডিউল যথা মিটিং ম্যানেজমেন্ট, প্রকিউরমেন্ট এবং এ্যসেট মডিউল উন্নয়ন সম্পন্ন হয়।

মডিউল সমূহ পরিকল্পনা বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, এনএপিডি ও বিআইডিএস-এ বাস্তবায়ন করার জন্য পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি অডিটরিয়ামে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালাটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের নিজস্ব সম্পদ, দেশীয় প্রযুক্তিবিদদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি প্রয়োগ করে সোনার ছেলেরা সোনার বাংলাদেশ গড়ার যে প্রত্যয় দেখলাম তাতে আমি খুবই আনন্দিত। তিনি বাস্তবায়ন কর্মশালার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা কোন বিদেশি সফটওয়ার ব্যবহার না করে সম্পুর্ন দেশিয় প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের জন্য পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে দশটি মডিউল সমন্বিত একটি ইআরপি সিস্টেম (যা জিআরপি হিসাবে) তৈরি করছি। এতে আমরা প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হচ্ছে সেই সাথে আমাদের দেশীয় প্রতিষ্ঠানের বিকাশ ঘটেছে। আমরা অন্তত তিনগুণ অর্থ সাশ্রয় করতে পারছি।

অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা কমিশনের সিনিয়র সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম।

দশটি স্টেকহোল্ডারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা এবং পরিকল্পনা বিভাগ, পরিকল্পনা কমিশন, এনএপিডি ও বিআইডিএস-এর ব্যবহারকারীগণ এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক জনাব পার্থপ্রতিম দেব, সরকারের বিভিন্ন দপ্তর/ সংস্থার প্রধান, প্রকল্পের স্টেকহোল্ডারগন, বুয়েটের মনোনীত পরামর্শক দল, বেসিসের সভাপতি এবং সিনেসিস আইটির প্রতিনিধিগন।

বাংলাদেশ ই-গভর্নমেন্ট ইআরপি পাইলট প্রকল্পের অধীনে প্রাথমিক ভাবে আইসিটি ডিভিশন এর ছয়টি সংস্থা এবং পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের চারটি সংস্থার জন্য মোট ৯ টি মডিউল উন্নয়ন করা হচ্ছে। পরবর্তিতে পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশের সকল মন্ত্রণালয়/বিভাগ ও সংস্থায় এই জিআরপি বাস্তবায়ন করা হবে। প্রকল্প পরিচালক ড. অশোক কুমার রায় উপস্থিত সকলকে কর্মশালায় উপস্থিত হয়ে সফল করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ দেন। কর্মশালায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/বিভাগ/সংস্থার সর্বমোট দুইশত জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

-প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

 

শেয়ার করুন :